ওজন কমানোর সব থেকে সহজ উপায়

5/5 - (2 votes)

ওজন কমানোর সব থেকে সহজ উপায়।

ওজন কমাতে হলে সব সময় খাওয়ার আগে এক গ্লাস পানি পান করুন। ওজন কমানো বেশকিছু কঠিন কাজ নয় একটু ধৈর্য চেষ্টা থাকলেই ওজন কমানো সম্ভব। ঘরোয়াভাবে ওজন কমানোর সবথেকে সহজ উপায়।

মসলাদার খাবার

শুধু সিদ্ধ খাবার কখনোই খাওয়া যাবে না খাবারে মসলা খেতে হবে যেমন হলুদ, ধনে, জিরা গুড়া, ইত্যাদি এই মসলা এই মসলাগুলো আপনার ওজন কমাতে সাহায্য করবে। মসলা খাবার দ্রুত হজম করে

চিনি

চিনি খাওয়া একেবারেই ছেড়ে দিতে হবে চা বা দুধে কখনো চিনি খাওয়া যাবেনা মিষ্টি জাতীয় খাবার কম খেতে হবে

নাচ

আপনি যদি নাচতে নাও পারেন তাহলেও গানের সাথে হাত ও পায়ের তালু মেলাবেন এতে আপনার ওজন কমে যাবে

বাড়ির কাজ 

বেশি করে বাড়ীর কাজ করতে হবে যেমন ঘর মোসলে সবথেকে আপনার বেশি ক্যালোরি লস হয় এতে আপনার ওজন কমে যাবে।

জগিং করুন

বেশি বেশি করে হাঁটাচলা দৌড়োদৌড়ি করুন এবং প্রতিদিন অল্প অল্প করে বেতের লাভ দিবেন  লাফাবেন এতে করে আপনার মেদ কমে যাবে

দিনে ঘুম বাদ দিন

দুপুরে খাওয়ার পর কোন ভাবে ঘুমানো যাবে না। দিনের বেলায় ঘুমালে আপনি মোটা হয়ে যাবেন। শুধু রাত্রে 8 ঘণ্টা ঘুমাবেন এর বেশি ঘুমানো যাবে না।

আস্তে আস্তে খান

খাবার দ্রুত খাওয়া যাবেনা দূরত্ব খাবার খেতে গেলে খাবার পরিমাণ বেশি খাওয়া হয়। খাবার আস্তে আস্তে খেতে হবে তাহলে খাবারের পরিমাণ কম লাগবে এতে আপনার অল্পতেই পেট ভরে যাবে।

পানি

পর্যাপ্ত পরিমাণে পানি খেতে হবে। খাবার পানি খাওয়ার কোন বিকল্প নেই। ঘুম থেকে উঠে খালি পেটে পানি খেতে হবে। বেশি পানি খেলে ক্ষুধা ভাব কেটে যায়।

শসা

শসা দেহের চর্বি কমাতে কার্যকরী ভূমিকা রাখে একটি শসায় 90%শতাংশ পানি ও 13.25 ক্যালরি থাকে যা শরীরের অতিরিক্ত ওজন কমাতে সাহায্য করে

গ্রিন টি

যদি ডায়েট ছাড়া ওজন কমাতে চান তাহলে গ্রীন টি পান করতে পারেন গ্রীন টি তে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট এটি আমাদের দেহের ওজন কমাতে সাহায্য করে তাই প্রতিদিন গ্রিন টি পান করুন

সকালের নাস্তা যেসব খাবার খেলে ওজন কমে।

 

ওজন কমানোর জন্য অনেকেই সকালের নাস্তা খান না। কুষ্টি বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন ওজন কমাতে গেলে ব্রেকফাস্ট বাদ দেওয়া নয় এমন কিছু খাবার খাওয়া দরকার যা ওজন দ্রুত কমিয়ে দিতে সাহায্য করে। দিল্লি সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ খাবার ব্রেকফাস্ট কি খাওয়া দরকার। দিনের শুরুটা আবার যদি স্বাস্থ্যকর হয় তাহলে সারাদিন শরীরে ভরপুর এনার্জি থাকে। কাজে সঠিকভাবে মন দেওয়া যায় সকালে ব্রেকফাস্ট কখনোই বাদ দেওয়া যাবে না ওজন কমানোর জন্য শরীরের প্রয়োজন অনুযায়ী পানি খাওয়া আর সেইসঙ্গে খাবার-দাবারের নজরদার সমান গুরুত্বপূর্ণ ডায়েট মেনে নিয়ম অনুযায়ী খাওয়া-দাওয়া করার সুযোগ ঘটনা অনেকেরই তবে সচেতন হলে ওজন বাড়তে পারে এমন সব খাবারের তালিকা থেকে বাদ দেওয়া যায় এবং তারা নিয়ে আসুন স্বাস্থ্যকর খাবার দাবার

লেবু ও গরম পানি

সকালে শুরুতেই দুই গ্লাস গরম পানি পান করুন লেবু দিয়ে। পানি শরীর থেকে টক্সিন গুলো বের করে দেয়। এতে করে ত্বক ভালো থাকে। এছাড়া পানি হজম ব্যবস্থার উন্নতি করে এবং বিপাকক্রিয়া ঠিক রাখে। লেবু পানি দুটোই ওজন কমানোর জন্য গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।

চিনিযুক্ত পানীয়

সকালের পানি চিনি দেবেন না তা সে দুধের তৈরি কোন রকম সেককরা কোন ফলের রস সেরা ফলাফলের প্রয়োজন অনেক বেশি উপকারী

শস্যদানা বাদ দিন

অনেকেই হয়তো জানেন না যে শষ্যদানার মধ্যে বেশ অনেকটা চিনির মতো কার্বোহাইড্রেট থাকে তাই সকালের নাস্তা না রাখলে ওজন কমার বদলে আরো বেড়ে যেতে পারে। ওজন কমানোর জন্য শুধু শাসা খাবেনা

ডিম

একটি ডিমে ছয়গ্রাম চৌধুরী এবং 70 গ্রাম ক্যালোরি থাকে এছাড়া টিমে প্রচুর পরিমাণে আয়রন থাকে যা শরীরের জন্য খুবই উপকারী আপনি চাইলে ডিমের কুসুম বাদ দিতে পারেন ডিম যেমন আপনার শরীরে প্রোটিনের ঘাটতি পূরণ করবে তেমন ওজন কমাতেও সাহায্য করবেন

কলা

কলাতে প্রচুর পরিমাণে পটাশিয়াম থাকে এছাড়াও ফাইবার এবং অনেক উপকারী ভরপুর কলা । ব্রেকফাস্ট এবং অন্যান্য ফলে সঙ্গে কল অবশ্যই রাখা দরকার ওজন কমার পাশাপাশি আপনার মুড ভালো রাখবে এবং এনার্জিও বাড়বে।

উচ্চ ক্যালরিযুক্ত খাবার কে না বলা

আপনার খাবার খুব বেশি মিষ্টি উচ্চ ক্যালরিযুক্ত খাবার অন্তর্ভুক্ত করবেন না। আপনার সকালের খাবার আপনার প্রতিদিনের ক্যালরির গ্রহণের মাত্রা 25 থেকে 30 শতাংশ হওয়া উচিত।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published.